বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৭:৫২ অপরাহ্ন

News Headline :
মহান বিজয় দিবস উদযাপন বাস্তবায়ন লক্ষ্যে তাড়াশে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৫২ বছর বয়সে এসএসসি পাশ করলেন কৃষক মতিন তাড়াশে গোপনে ম্যানেজিং কমিটি করার অভিযোগ শপথ নিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য শরিফুল ইসলাম তাজফুল তাড়াশে সুফলভোগীদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে কৃষকের মাঝে কৃষি যন্ত্রপাতি ও কৃষি উপকরণ বিতরণ  তাড়াশে ৫১তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে সরকারি খাস জায়গা অবৈধভাবে দখল করে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাড়াশে মাধাইনগর ইউনিয়নের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৩টি ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

খুলনায় নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের স্মারকলিপি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে ধর্ষকদের দ্রুত বিচার ও সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি

জিয়াউল ইসলাম, বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান খুলনা:
  • Update Time : রবিবার ১১ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৪৫ বার পঠিত

জিয়াউল ইসলাম, বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান খুলনা:

সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত নারী ও শিশু ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতন সহ নারী ও শিশু নির্যাতনের সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার, বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে অপরাধীদের দ্রুত বিচার ও সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা এবং নারী-শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানিয়েছে নারী ও শিশু অধিকার ফেরাম খুলনা মহানগর শাখার নেতৃবৃন্দ। রোববার দুপুরে খুলনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর পেশকৃত স্মারকলিপিতে নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানান। একই সঙ্গে নারীর সম্ভ্রমহানী, শিশু ও নারীর উপর ক্রমবর্ধমান পৈশাচিক বর্বরতায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে খুলনা নগরীর গল্লামারী ও রূপসা উপজলার জাবুসা, পাইকগাছা, সিলেট এমসি কলেজ, নোয়াখালী বেগমগঞ্জ, খাগড়াছড়ি, মুন্সিগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত নারীর সম্ভ্রমহানি, নারীর ও শিশুর উপর নারকীয় পাশবিক বিভৎস নির্যাতন-সহিংসতা
দেশে মহামারীর মতো ছড়িয়ে পড়েছে। যা সুস্থ বিবেকবান সকল মানুষকে চরম আতংকগ্রস্থ করে তুলেছে।
আরো উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ আজ নারী ও শিশুর জন্য চরমনিরাপত্তাহীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে জাতি হিসেবে আমাদের ভাবমূর্তি মর্যাদা ভ‚লুষ্ঠিত হচ্ছে। ইতিমধ্যে জাতিসংঘের মহাসচিব বাংলাদেশে নারী ও শিশু ধর্ষণ, নির্যাতন, হত্যা বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবং সরকারকে দ্রুত সময়ের মধ্যে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানিয়েছেন।
স্মারকলিপিতে ফোরাম নেতারা আরও উল্লেখ করেন, সাম্প্রতিক সময়ে সংঘটিত অধিকাংশ ঘৃন্য বর্বরোচিত নারী ও শিশুর সম্ভ্রমহানি নির্যাতনের দুষ্কর্মের সাথে ক্ষমতাসীন দল, ব্যক্তি বিশেষ ও নেতা-কর্মীরাও জড়িত। স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশও সময়মতো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়নি। নির্যাতিতাদের মধ্যে অনেকেই মানুষিক ভারসাম্যহীনহয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। অভিভাবক মহলে দারুণ উদ্বেগ ও উৎকষ্ঠা সৃষ্টি হয়েছে। সেই সাথে সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাম্প্রতিক বক্তব্যও জনমনে তীব্র ক্ষোভ তৈরি করেছে। তার এই দায়িত্বহীন বক্তব্যে দুর্বৃত্তদের ঘৃন্য অপরাধকেই আশকারা দেওয়া হয়েছে। আমরা অবিলম্বে এই ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য প্রদানের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অপসারণ
দাবি করছি।
স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন ফোরামের মহানগর আহবায়ক ও কেসিসির সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, ফোরামের সদস্য সচিব নারীনেত্রী রেহানা ইসা, বিএনপি নেতা সেকেন্দার জাফরুল্লাহ খান সাচ্চু, স ম আব্দুর রহমান, শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, সিরাজুল হক নান্নু, শাহিনুল ইসলাম পাখি, শেখ সাদী, সাদিকুর রহমান সবুজ, খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সহ-সভাপতি নিজামুর রহমান লালু, হাসানুর রশীদ মিরাজ, শামসুজ্জামান চঞ্চল, শরিফুল ইসলাম বাবু, এডভোকেট কানিজ ফাতেমা আমিন, ফোরাম নেতা মাহবুব আলম বাদশা, সাবেক কাউন্সিলর হাসনা হেনা, আনজিরা খাতুন, ইসহাক তালুকদার, ওয়াহিদুর রহমান দিপু, আব্দুল আলিম, আব্দুল মতিন, জি এম রফিকুল ইসলাম, গৌতম দে হারু, এডভোকেট কামাল হোসেন, অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, আনিসুর রহমান, আরিফুল ইসলাম, মুশফিকুর রহমান অভি, আল মামুন, আলমগীর হোসেন প্রমূখ।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..