মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

এমন লজ্জা আগে পায়নি বাংলাদেশ

admin
  • Update Time : বৃহস্পতিবার ১ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৫৫ বার পঠিত

সময়ের সংবাদ:

তামিম বলছেন, দায়িত্ব নিয়ে কেউই খেলতে পারিনি। সৌম্যর ভাষ্য, ভালো খেলা উচিত ছিল। মুশফিক আগের দিন বলেছিলেন, আমরা সুযোগ হাতছাড়া করেছি।

শ্রীলঙ্কা সফরের পারফরম্যান্স নিয়ে ঘুরিয়ে ফুরিয়ে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা প্রত্যেকে একই কথা বলছেন। সবার কন্ঠে এক সুর। দলের সবাই নিজেদের পারফরম্যান্সে হতাশ। পুরো দলের মধ্যে অস্বস্তি। ড্রেসিংরুমে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে হাহাকারের সুর।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেসেখেলে সিরিজ জিতবে বাংলাদেশ, এমন ভাবনা নিয়ে শ্রীলঙ্কায় যায়নি দল। দলের প্রত্যেকেরই ভাবনায় ছিল শ্রীলঙ্কা কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। কিন্তু মাঠের ক্রিকেটে সবকিছু হলো উল্টো। বাংলাদেশ তিন ওয়ানডেতে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতাই করতে পারেনি। হেসেখেলে শ্রীলঙ্কা হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশকে। তাই তো লঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে বলেন, ‘এভাবে যে ওরা সিরিজ হারবে, তা ভাবিনি।  আমরা আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। ভেবেছিলাম লড়াই করবে। কিন্তু তেমন কিছুই তো হলো না।’

 

বাংলাদেশ পারেনি সেটাই বড় কথা। এমন হতশ্রী পারফরম্যান্সে নিজেদের ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে দিন, সবচেয়ে বড় লজ্জা পেতে হলো বাংলাদেশকে।  র‌্যাঙ্কিংয়ে পিছিয়ে থাকা দলের বিপক্ষে এবারই প্রথম ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ হলো বাংলাদেশ। বর্তমান র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী বাংলাদেশ রয়েছে সাতে, শ্রীলঙ্কা আটে।

একটা সময় বাংলাদেশ ম্যাচের পর ম্যাচ হারত, হারত সিরিজের পর সিরিজ। যেমন, ৮ অক্টোবর ১৯৯৯ থেকে ১২ নভেম্বর ২০০৩ পর্যন্ত টানা ৪৭ ম্যাচে কোনো জয় পায়নি বাংলাদেশ। এ সময়ে মাত্র ২টি ম্যাচে কোনো ফল আসেনি, বাকিগুলোতে বাংলাদেশ হেরেছিল। অবশ্য ওই সময়টায় র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ছিল সবচেয়ে পিছিয়ে। বাংলাদেশের থেকে এগিয়ে ছিল জিম্বাবুয়ে।

২০০৭ বিশ্বকাপের পর র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ জিম্বাবুয়েকে টপকে যায়। এরপর বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ হেরেছে, সিরিজও হেরেছে, কিন্তু হোয়াইটওয়াশ হয়নি। আবার বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পেছনে ফেলার পর ম্যাচ-সিরিজ হেরেছে কিন্তু হোয়াইটওয়াশ হয়নি। এবারের শ্রীলঙ্কা সফর সব ব্যর্থতাকে পেছনে ফেলেছে।

 

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুনাম কুড়ানোর পর বাংলাদেশ ক্রিকেট সবচেয়ে বাজে সময় কাটিয়েছে ২০১৪ সালে মুশফিকুর রহিমের অধিনে। বাংলাদেশ টানা ১৩ ম্যাচে জয়হীন ছিল তার অধীনে। ২০১৪ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ আগস্ট পর্যন্ত টানা ১৩ ম্যাচে জয়হীন বাংলাদেশ। মাঝে ভারতের বিপক্ষে একটি ম্যাচে বৃষ্টিতে পণ্ড হয়েছিল। বাকি সবকটিতে হার। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এশিয়া কাপে হারতে হয়েছিল। ভারতের বিপক্ষে ৫৮ রানে অলআউট হয়ে ম্যাচ হেরেছিল।

টানা ব্যর্থতার পর মুশফিকের কাছ থেকে মাশরাফির হাতে দায়িত্ব দেওয়া হয়। মাশরাফি দ্বিতীয়বারের মতো অধিনায়কত্ব পেয়ে পাল্টে দেন বাংলাদেশ ক্রিকেটকে। পাঁচ সিনিয়র- মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে একঝাঁক তরুণ ও প্রতিভাবান ক্রিকেটার নিয়ে লড়াই শুরু করে বাংলাদেশ। শুরুতেই বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল।  এরপর ঘরের মাঠে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়। আফগানিস্তান, জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ কিংবা শ্রীলঙ্কা কাউকেই পাত্তা দেয়নি বাংলাদেশ। ধারাবাহিক সাফল্য পাওয়ায় বাংলাদেশ র‌্যাঙ্কিংয়ে বড় লাফ দেয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তানকে টপকে বাংলাদেশ র‌্যাঙ্কিংয়ের সাতে উঠে আসে।

২০১৭ সালে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সরাসরি অংশগ্রহণ করে এবং টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণের আগে আয়ারল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডকে হারায়। ওই ম্যাচের ফলের ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো র‌্যাঙ্কিংয়ের ছয়ে উঠে আসে। শ্রীলঙ্কার রেটিং পয়েন্ট ছিল ৯২.৮। বাংলাদেশের ৯৩.৩।

 

চ্যাম্পিয়নস ট্রফি জয়ের মধ্য দিয়ে পাকিস্তান বাংলাদেশকে পেছনে ফেললেও শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান, জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ডের থেকে এগিয়ে থাকে বাংলাদেশ। সাফল্যর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ এখনো রয়েছে সাতে। কিন্তু এবারের শ্রীলঙ্কা সফরের পারফরম্যান্স দিয়ে বাংলাদেশ হারিয়েছে ৬ পয়েন্ট। এ সিরিজের আগে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার রেটিং পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ১১। তিন জয়ে শ্রীলঙ্কা সেই ব্যবধান নামিয়ে এনেছে ৪-এ।

আরেকটি বিষয় বলে রাখা ভালো, মাশরাফি দায়িত্ব পাওয়ার পর দেশের মাটিতে কোনো সিরিজে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়নি। কেবল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খুইয়েছিল। এ ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকায় একবার এবং নিউজিল্যান্ডে দুবার ৩ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল। এবার ব্যর্থতায় খাতায় যোগ হলো শ্রীলঙ্কার নাম। যাদের বিপক্ষে ২০১৪ সালের পর প্রথম হোয়াইটওয়াশ হলো বাংলাদেশ

জয়-পরাজয়, সিরিজ বাঁচানো-হোয়াইটওয়াশ; সব আলোচনা এখন শেষ। লঙ্কা সফরের সারমর্ম এটাই- এমন লজ্জা আগে পায়নি বাংলাদেশ!

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..