বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১১:২০ পূর্বাহ্ন

তাড়াশে নিষিদ্ধ ইউক্যালিপটাস গাছের আগ্রাসন

admin
  • Update Time : বৃহস্পতিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ৪৭৫ বার পঠিত

গোলাম মোস্তফা,নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের সংবাদ:
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে আঞ্চলিক ও গ্রামীণ সড়কের পাশে, ফসলি জমির আইল, বসতঘরের আঙিনাসহ প্রায় সবখানেই নিষিদ্ধ ইউক্যালিটাস গাছের আগ্রাসন। সব ধরনের মাটিতে স্বল্প খরচে অল্প জায়গায় দ্রুত বর্ধনশীল এই গাছের প্রতি মানুষের রয়েছে লোভনীয় চাহিদা।
সরেজমিনে দেখা যায়, প্রতিটি রাস্তার দু’পাশে, বাড়ির আঙিনাসহ বিস্তীর্ণ মাঠে বিভিন্ন ফসলের সাথে ব্যাপকভাবে রোপণ করা হয়েছে ইউক্যালিপটাস গাছ। সরকারি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট-বাজার সব খানেই শোভা পাচ্ছে এই নিষিদ্ধ গাছ।


পরিবেশ বিশেষজ্ঞদের মতে ইউক্যালিপটাস গাছ মানবদেহ, পোকামাকড় ও পাখিদের জন্য যথেষ্ট ক্ষতিকর। বসতবাড়িতে অধিক পরিমাণে ইউক্যালিপটাস গাছ থাকলে শিশু ও বৃদ্ধদের শ্বাসকষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একটি পূর্ণবয়স্ক ইউক্যালিপটাস গাছ ২৪ ঘণ্টায় ভূগর্ভ থেকে প্রায় ৯০ লিটার পানি শোষণ করে। শুধু পানিই নয় খনিজ লবনও শোষণ করে। অতিরিক্ত কার্বন-ডাই-অক্সাইড নিঃসরণ করার ফলে তাপমাত্রা বেড়ে যায়। ২০ থেকে ৩০ বছর কোনো স্থানে গাছগুলো থাকলে সেখানে অপর প্রজাতির কোনো গাছ জন্মাতে পারে না। এই গাছে কোনো পাখি পর্যন্ত বাসা বাঁধে না।
এ প্রসঙ্গে উপজেলা বন কর্মকর্তা মোসলেম উদ্দিন বলেন, পরিবেশ উপযোগী না হওয়ায় ২০০৮ সালে সরকারের বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে দেশে ইউক্যালিপটাসের চারা উৎপাদন ও বিপণন নিষিদ্ধ করেছেন। মানুষ না জেনে ইউক্যালিপটাসের চারা বপন করছেন। এ জন্য সামাজিক সচেতনতা অতিব জরুরি।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..