সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালিত তাড়াশে ছাত্রলীগ নেতা ছোটনের ধুমধামে জন্মদিন পালিত তাড়াশে এমপি আজিজের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন তাড়াশে পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন আওয়ামীলীগ নেতা শামীম সরকার তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল বাকীর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন। তাড়াশে শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হান্নান তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে গাছের চারা বিতরণ তাড়াশে নওগাঁ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল।

তাড়াশে বিএডিসি সেচ কমিটি ও পল্লী বিদ্যুতের অনিয়ম-দুর্নীতিতে দিশেহারা কৃষক

গোলাম মোস্তফা, নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের সংবাদ
  • Update Time : শনিবার ২ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৪১০ বার পঠিত

উপজেলার দেশীগ্রাম ইউনিয়নের গুড়পিপুল গ্রামের শামছুল হক (৫৫) নামে এক কৃষক তার কৃষি জমিতে অগভীর নলকূপের লাইসেন্সর জন্য নীতিমালা অনুযায়ী সব শর্ত মেনে বিএডিসি সেচ কমিটি বরাবর আবেদন করেন। কিন্তু বিএডিসি সেচ কমিটি সমন্বিত ক্ষুদ্র সেচ নীতিমালা-২০১৭ না মেনে ঐ গ্রামেরই তায়জুল হোসেন নামে এক কৃষকের আবেদনের অনুকূলে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স প্রদান করেন।
“ তায়জুল হোসেনের যে জমিতে কৃষি কাজে সেচের জন্য অগভীর নলকূপের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে, বস্তুত সে জমির শ্রেণি পুকুর। তাছাড়া তায়জুল হোসেনের অগভীর নলকূপের সংযোগ স্থলের মাত্র ৪৯০ ফুট দূরত্বের মধ্যেই মোহাব্বত আলী নামে এক কৃষক বিএডিসি সেচ কমিটি হতে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স নিয়ে সেচ কাজে ব্যবহার করছেন। ”
দিশেহারা কৃষক শামছুল হক বিএডিসি সেচ কমিটি ও সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ তাড়াশ জোনাল অফিসের অনিয়ম ও দুর্নীতি হতে প্রতিকার চেয়ে সংশ্লিষ্টদের দ্বারে-দ্বারে ঘুরে অবশেষে তা না পেয়ে ২৪/১২/২০২০ তারিখে সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ বরাবর, ০৮/১১/ ২০২০ তারিখে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি মো. মেজবাউল করিম বরাবর ও ০৪/১১/২০২০ তারিখে সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ তাড়াশ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মুহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন খান বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দেশীগ্রাম ইউনিয়নের গুড়পিপুল মৌজায় কৃষক শামছুল হকের কৃষি জমি অবস্থিত। সেখানে কৃষি সেচ দেওয়ার জন্য জলাশয় বা অন্য কোনো বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় তিনি ০৫/১২/২০১৮ তারিখে বিএডিসি সেচ কমিটি বরাবর একটি অগভীর নলকূপের লাইসেন্সর জন্য আবেদন করেন। যার জে/এল নং ৪৭, দাগ নং ৩২৮/২৬৬ ও খতিয়ান নং ৭/২৯১। কিন্তু উপজেলা বিএডিসি সেচ কমিটি সম্পূর্ণ নীতিমালা বহির্ভূতভাবে ঐ মোজাতেই তায়জুল হোসেন নামে এক কৃষকের আবেদনের অনুকূলে ২৩/০৬/২০২০ তারিখে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স প্রদান করেন। লাইসেন্স নং ৪৪৪।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে আরো জানা যায়, তায়জুল হকের ২৭৩ নং দাগের যে জমিতে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে, সেই জমি পুকুর শ্রেণি হিসাবে দলিলে সুস্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে। যা সম্পূর্নভাবে নীতিমালা বহির্ভূত। তাছাড়া বিএডিসি সেচ কমিটির দেওয়া একটি অগভীর নলকূপ হতে আরেকটি অগভীর নলকূপের দূরত্ব ৮২০ ফুট হওয়া ব্যঞ্চনীয়। কিন্তু তায়জুল হকের অগভীর নলকূপের মাত্র ৪৯০ ফুটের মধ্যেই ০৮/০৪/২০১৯ তারিখে বিএডিসি সেচ কমিটির দেওয়া মোহাব্বত আলী নামে আরেক কৃষকের একটি অগভীর নলকূপ চালু রয়েছে।
দিশেহারা কৃষক ছামছুল হক বলেন, একাধিক অভিযোগ দেওয়ার পরেও বিএডিসি সেচ কমিটি কোনো পদক্ষেপ গ্রহন না করে নীরব ভূমিকা পালন করে আসছেন। কিন্ত সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ তাড়াশ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মুহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন খান তদন্ত করে শতভাগ সত্যতা পেয়ে যান। তারপর তিনি সংযোগ প্রক্রিয়া স্থগিত করে রাখেন ও সভাপতি, উপজেলা সেচ কমিটি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাউল করিম বরাবর ২৭/ ১২/২০২০ তারিখে এরূপ অনিয়ম ও অসঙ্গতির মতামত চেয়ে একটি পত্র প্রেরণ করেন। এরই মধ্যে তায়জুল হোসেনের অগভীর নলকূপে বিদ্যুৎ সংযোগও লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ তাড়াশ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মুহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন খান বলেন, কৃষক শামছুল হকের অভিযোগ সত্য। কিন্তু উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তিনি তায়জুল হকের অগভীর নলকূপে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে বাধ্য হয়েছেন। তিনি আরো বলেন, সব দায় বিএডিসি সেচ কমিটির। তারা তায়জুল হোসেনের অগভীর নলকূপের লাইসেন্সর বাতিল করলে তৎক্ষণাৎ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হবে।
সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ উল্লাপাড়া সদর অফিসের জেনারেল ম্যানেজার রমেন্দ্র নাথ রায় বলেন, তায়জুল হোসেনকে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স দেওয়ার মধ্যে যদি কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়ে থাকে, সেটা ক্ষতিয়ে দেখার দায়িত্ব বিএডিসি সেচ কমিটির। তারপর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।
উপজেলা বিএডিসির উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও উপজেলা সেচ কমিটির সদস্য সচিব মো. ইমাম হোসেন বলেন, তিনি ফাইল পত্র দেখেছেন, তায়জুল হোসেনের অগভীর নলকূপের লাইসেন্সর আবেদনের শুরু থেকেই বেশ জটিলতা ছিলো। শেষ পর্যন্ত আগের ইউএনও ইফ্ফাত জাহান ৭০০ ফুট পর্যন্ত দূরত্ব বজায় রেখে লাইসেন্সর জন্য আবেদন করতে বলেন। ঐ সময় সেচ কমিটির সভায় এরূপ সিদ্ধান্তই গৃতিহ হয়। একই সাথে তা রেজুলেশন হিসেবে লিপিবদ্ধ করা হয়। তখন তিনি তাড়াশে ছিলেন না। বিএডিসির উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও সেচ কমিটির সদস্য সচিব মো. গোলাম রাব্বানী থাকা কালীন তায়জুল হোসেনের অগভীর নলকূপের লাইসেন্স দেওয়া হয়।
তিনি আরো বলেন, অনিয়ম পরিলক্ষিত হওয়ার পর সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ তাড়াশ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মুহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন খানকে বিদ্যুৎ সংযোগ না দেওয়ার জন্য বলা হয়েছিলো। এসবের দায় তিনি কখনো এড়িয়ে যেতে পারেন না। কারণ তিনিও উপজেলা সেচ কমিটির একজন সদস্য।
সিরাজগঞ্জ জেলা বিএডিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাজুদ আলম বলেন, এ বিষয়ে তার মন্তব্য নাই। নিয়ম অনুযায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতিই সর্বাসের্বা। বিএডিসি সেচ কমিটি কর্তৃক তায়জুল হোসেনকে অগভীর নলকূপের লাইসেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে অনিয়ম হয়ে থাকলে তিনি যে কোনো সময় লাইসেন্স বাতিল করার এখতিয়ার রাখেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি মো. মেজবাউল করিম বলেছেন, তিনি মাস চারেক হলো তাড়াশে এসেছেন। তায়জুল হোসেনকে লাইসেন্সটি তারও আগে দেওয়া হয়েছে। সমন্বিত ক্ষুদ্র সেচ নীতিমালা অনুযায়ী অবশ্যই তিনি প্রয়োজনীয় কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করবেন।
সর্বপরি দিশেহারা কৃষক শামছুল হক জানিয়েছেন, এহেন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা না হলে মানববন্ধন করা হবে। প্রয়োজনে তিনি ন্যায় পাওয়ার জন্য অনশনে বসবেন।
এদিকে সরেজমিনে শনিবার দুপুরে দেখা গেছে, তায়জুল হোসেন অনিয়ম ধামাচাপা দেওয়ার জন্য তার যে পুকুরের ঢালে বিএডিসি সেচ কমিটি কর্তৃক অগভীর নলকূপের লাইসেন্স নিয়েছেন, সেই পুকুরে ভেক্যু মেশিন লাগিয়ে পুকুরের পাড় কেটে আবাদি জমি করার চেষ্টা করছেন।
এ প্রসঙ্গে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক ডা. ফারুক আহাম্মদ  বলেন, কৃষক ছামছুল হকের অভিযোগ যাচাই করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..