সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০০ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালিত তাড়াশে ছাত্রলীগ নেতা ছোটনের ধুমধামে জন্মদিন পালিত তাড়াশে এমপি আজিজের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন তাড়াশে পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন আওয়ামীলীগ নেতা শামীম সরকার তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল বাকীর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন। তাড়াশে শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হান্নান তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে গাছের চারা বিতরণ তাড়াশে নওগাঁ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল।

নওগাঁর মহাদেবপুরে চাঁন্দাশ দক্ষিণপাড়া দুর্গা মন্দিরে সরকারি বরাদ্দ দেয়া হয়নি

কাজী সামছুজ্জোহা মিলন, মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : রবিবার ২৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ২১১ বার পঠিত

কাজী সামছুজ্জোহা মিলন, মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর মহাদেবপুরে চাঁন্দাশ ইউনিয়নের চাঁন্দাশ দক্ষিণপাড়া শ্রী শ্রী দূর্গা মন্দিরে সরকারি কোনো বরাদ্দ দেয়া হয়নি। এবার জেলার মধ্যে সর্বোচ্চ মহাদেবপুর উপজেলায় ১৪৮ টি শারদীয় দুর্গা মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে চাঁন্দাশ ইউনিয়নের ৮টি মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইউনিয়নের ৭ টি মন্ডপের প্রতিটিতে সরকারি বরাদ্দ হিসেবে ৫০০ কেজি করে চাল দেয়া হয়। এছাড়া উপজেলার প্রতিটি মণ্ডপে অনুরূপ ভাবে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়।

এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান মিলনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য বলেন।

চাঁন্দাশ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুন্নবী রিপনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সে ইউনিয়নের ৮ টি পূজা মন্ডপের তালিকা জমা দিয়েছেন। কিন্তু ইউনিয়ন পূজা উদযাপন কমিটি ৭ টি পূজা মন্ডপের তালিকা জমা দিয়েছেন।

এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মুলতান হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তালিকায় নাম থাকলে অবশ্যই বরাদ্দ পাবেন। এছাড়া তিনি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নাকি পূজা উদযাপন কমিটির তালিকা গ্রহণ করবেন, তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

ইউনিয়ন পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, চাঁন্দাশ দক্ষিণপাড়া শ্রী শ্রী দুর্গা মন্দিরের সভাপতি নিবারণ চন্দ্র এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানিয়ে ছিলেন এবার পূজা হবেনা। এ কারণে বরাদ্দ রাখা হয়নি।

এব্যাপারে শ্রী নিবারন চন্দ্রের সাথে কথা বললে তিনি জানান, দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে এখানে পূজা উদযাপন হয়ে আসছে। এবারও পুজা উদযাপন করা হচ্ছে। তাকে চিঠি দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে পূজা উদযাপন কমিটির সদস্য হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তারপরও কেন বরাদ্দ পেলেন না এটি এখন বড় প্রশ্ন?

ইউনিয়নের বিভিন্ন জনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয় রাজনীতিতে নিবারন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ১নং ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন
করায় এমনটি হতে পারে।

এব্যাপারে উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অজিত কুমার মন্ডল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভায় জানা যায় ওই মন্দিরে এবার পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। কিন্তু পূজা শুরুর ৭ দিন আগে তারা প্রতিমা তৈরি করে পূজা উদযাপন করছে। যার ফলে বরাদ্দ দেয়া সম্ভব হয়নি।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..