মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১১:৫৯ অপরাহ্ন

ধুনটে এবার লাগবে আগুন সবজির বাজারে

মোঃ হেলাল উদ্দিন সরকার, ধুনট বগুড়া থেকেঃ
  • Update Time : রবিবার ১১ অক্টোবর, ২০২০
  • ৬২৬ বার পঠিত

মোঃ হেলাল উদ্দিন সরকার, ধুনট বগুড়া থেকেঃ

সারা দেশের মতো ধুনটে গত দুই সপ্তাহ ঘন ঘন অতিবৃষ্টি ও জলাবদ্ধতার কারণে ধুনট উপজেলার কাঁচাবাজার গুলোতে বেশিরভাগ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে।

সবচেয়ে বেড়েছে সবজির দাম।
বাজার ঘুরে দেখা যায়, সবজী বাজারে কাঁচামালের সরবরাহ কমে গেছে, ঘন ঘন বৃষ্টির ফলে সবজী চাষিদের সবজি চারা পচে যাওয়ায় সবজী সরবরাহ কম থাকার অজুহাতে সবজিসহ কাঁচামরিচ, পেঁয়াজ, আদা, রসুন ও আলুর দাম বাড়ানো হয়েছে।

একই সঙ্গে মাছের দরও বেশ চড়া। এতে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষেরা পড়েছেন বিপাকে। অনেকে বাড়তি দামের কারণে কাঙ্ক্ষিত পণ্য কিনছেন না। অন্যদিকে আগাম সবজি চাষ করে দুচিন্তায় পড়েছে উপজেলার চাষিরা।

চলতি বছরের শীতের শুরুতে বাজারে আমদানি করে ভাল দাম পাওয়ায় আশায় আগাম সবজি রোপন করে দুচিন্তায় পড়েছে উপজেলার সবজি চাষিরা।

উপজেলার সবজি চাষিদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতি বছর আগাম সবজি চাষ করে আমরা অনেক লাভবান হই। কিন্তু এ বছর অতিরক্ত বর্ষার কারণে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছি।

সরোজমিন ঘুরে দেখা যায়, আগাম জাতের সিম, বেগুন, মুলা, কপি, চারা, বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি, এগুলো অতিরিক্ত বর্ষার কারণে পানিতে ডুবে গোড়ালি পচে যাওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে। কিছু কিছু জায়গায় বন্যায় প্লাবিত হয়ে সবজি ক্ষেত নষ্ট হয়েছে, এজন্য সবজী বাজারে খুব কম আসছে। যার ফলে বাড়তি দামে কাঁচাবাজার করতে হচ্ছে ক্রেতাদের।

সবজি বিক্রেতা সুজন জানান, গত মাসে বন্যা শুরু হওয়ার পর থেকেই শাক-সবজির দাম বাড়তি। প্রায় এক মাস ধরে দাম এভাবে ঘুরাফেরা করছে। কোন কোন দিন কেজিতে ১০ টাকা এদিক সেদিক হচ্ছে। কৃষকরা যদি এই সবজি চাষ না করতে পারে তাহলে আমরা পাবো কিভাবে। যতটুকুই সবজি আসছে সেটাও বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। আর এই জন্যই আমাদেরকে ও বাড়তি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..