রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১৭ অপরাহ্ন

News Headline :
মহান বিজয় দিবস উদযাপন বাস্তবায়ন লক্ষ্যে তাড়াশে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৫২ বছর বয়সে এসএসসি পাশ করলেন কৃষক মতিন তাড়াশে গোপনে ম্যানেজিং কমিটি করার অভিযোগ শপথ নিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য শরিফুল ইসলাম তাজফুল তাড়াশে সুফলভোগীদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে কৃষকের মাঝে কৃষি যন্ত্রপাতি ও কৃষি উপকরণ বিতরণ  তাড়াশে ৫১তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে সরকারি খাস জায়গা অবৈধভাবে দখল করে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাড়াশে মাধাইনগর ইউনিয়নের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৩টি ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

হরিরামপুরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা

আবিদ হাসান, হরিরামপুর, মানিকগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : শনিবার ১০ অক্টোবর, ২০২০
  • ১১০৫ বার পঠিত

আবিদ হাসান, হরিরামপুর, মানিকগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দুর্গাপূজা। এ উৎসবকে সামনে রেখে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলায় প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা তৈরির শিল্পীরা। তাদের যেন দম ফেলার ফুরসত নেই। আগামী ২২ অক্টোবর ষষ্ঠী তিথিতে শুরু হয়ে ২৬ অক্টোবর দশমী তিথিতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে এবারের শারদীয় উৎসব।

তবে, করোনাপরিস্থিতিতে অন্যান্য বছরের মতো উৎসবের সেই চিরচেনা আমেজ এবার থাকছে না। এ বছর পূজা উদযাপনে পূজা মন্ডপে আগত দর্শনার্থীদের জীবাণুমুক্ত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রাখা, দর্শনার্থী, ভক্ত ও পুরোহিত সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরা, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং আরতি প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিহারসহ ২৬ দফা নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ।

উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটি সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলার ৬০টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর উপজেলার ৬১টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

সরজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কয়েকটি পূজামন্ডপ ঘুরে দেখা যায়, বাঁশ, কাঠ ও খড় দিয়ে কাঠামো তৈরির পর বেশিরভাগ মন্দিরেই মাটির কাজ শেষ হয়েছে। মাটি শুকালেই তাতে পড়বে রং-তুলির আচড়। আবার কোথাও কোথাও প্রতিমার সকল কাজ সম্পন্নও হয়েছে।

উপজেলার লাউতা বাজার পূজামন্ডপে প্রতিমা তৈরি করছেন শিল্পী সুধাংশু পাল। তার বাড়ি সাভারের শিমুলিয়াতে।

তিনি জানান, প্রায় ১২ বছর ধরে লাউতা বাজারের মন্ডপে প্রতিমা তৈরি করেন তিনি। আগের বছরগুলিতে ১০টি পর্যন্ত প্রতিমা তৈরি করলেও এ বছর একেকজন প্রতিমাশিল্পী ৪ থেকে ৫টি করে প্রতিমা তৈরি করছেন।

গোপীনাথপুর গ্রামের নারায়ন পাল এ বছর সাতটি মন্ডপে প্রতিমা তৈরি করছেন। তিনি জানান, এ বছর প্রতিমা তৈরিতে ব্যবহৃত সকল উপকরণের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে খড়ের দাম প্রচুর বেড়েছে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, হরিরামপুর উপজেলা শাখার সভাপতি দিলীপ রায় জানান, এবারের পূজা উদযাপনে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের ২৬ দফা নির্দেশনা রয়েছে। প্রতিটি পূজা মন্ডপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..