মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:২৯ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে পুকুর খননের প্রতিবাদে মডেল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন তাড়াশে মডেল প্রেসক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ম্যাগনেট আঃলীগের মনোনয়ন পেয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ তাড়াশে বিজয় দিবস বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে ভোট কেন্দ্র পরিবর্তন না করার দাবীতে মানববন্ধন তাড়াশে স্কুলের সভাপতি হলেন আওয়ামীলীগ নেতা জহুরুল ইসলাম মাষ্টার মাটির চুলায় খড়-কুটোর রান্না তাড়াশে বাল্য বিবাহ ও ধর্ষণকে লাল কার্ড তাড়াশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য পদ পেলেন জিল্লুর রহমান তাড়াশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হলেন সাইদুর রহমান

কারাবন্দি সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের অবিলম্বে মুক্তি চেয়েছে আর্টিকেল নাইনটিন

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২১৫ বার পঠিত

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া মামলায় কারাবন্দি সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের অবিলম্বে মুক্তি চেয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে বিবৃতি দিয়েছে আর্টিকেল নাইনটিন।

শুক্রবার মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠনটি নিজেদের ওয়েবসাইটে বিষয়টি জানায়।

ওই দিনই জেনেভায় মানবাধিকার কাউন্সিলের ৪৫তম নিয়মিত অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। মানবাধিকার পরিষদের নজরে আনা প্রয়োজন—এমন গুরুত্বপূর্ণ মানবাধিকার ইস্যুগুলো নিয়ে সেখানে বিতর্ক হয়।

আর্টিকেল নাইন্টিনের বক্তব্যে বাংলাদেশসহ ব্রাজিল, কম্বোডিয়া, মেক্সিকোর সাংবাদিকদের ওপর হামলা-নির্যাতনের বিষয়টি উঠে আসে। সেখানে ফটো সাংবাদিক ও পক্ষকাল পত্রিকার সম্পাদক কাজলের মুক্তির দাবি জানানো হয়।

কাজলের সঙ্গে করা অমানবিক আচরণের জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় সংগঠনটি।

আর্টিকেল নাইনটিনের বক্তব্যে বলা হয়, বাংলাদেশে সাংবাদিকদের প্রতি সহিংসতার ঘটনাগুলো প্রায়ই বিচারহীনতায় শেষ হয়। ২০২০ সালের মার্চ মাসে একজন সংসদ সদস্য কর্তৃক মানহানির মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল সন্দেহজনকভাবে নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার ৫৩ দিন পর একটি মাঠের মধ্য থেকে চোখ বাঁধা অবস্থায় ‘উদ্ধার’ করে তাকে হেফাজতে নেওয়া হয়। তখন থেকে মানহানি সংক্রান্ত ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগে কাজল কারাবন্দি হয়ে আছেন।

এতে আরও বলা হয়, নিখোঁজ হওয়ার সময় তিনি নিরাপত্তা বাহিনীর হেফাজতে ছিলেন—এমন দাবির পক্ষে সুস্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে। আমরা কাজলকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে এবং তার প্রতি অমানবিক আচরণের জন্য দায়ীদের জবাবদিহির ব্যবস্থা করার জন্য বাংলাদেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..