শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০২:৩৪ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে দলিলকৃত জায়গা জোরপূর্বক দখল করার অভিযোগ পদ্মা সেতু দেখতে গেছেন স্বামী, বউ-শাশুড়িকে প্রেমিকের সঙ্গে ধরলেন জনতা প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে তাড়াশে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে তাড়াশে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ তাড়াশে আওয়ামীলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তাড়াশে মাদক সেবন করে মাতাল অবস্থায় ছাত্রদলের নেতা আটক তাড়াশে আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত অসুস্থ তফেরের পাশে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খাঁন সারাদেশে বিএনপির অরাজকতার সৃষ্টির প্রতিবাদে তাড়াশে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল

চিরিরবন্দরে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করতে গিয়ে এম্বুলেন্সসহ ড্রাইভার আটক

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৮২ বার পঠিত

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি; দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করতে গিয়ে এলাকাবাসীর হাতে আটক হয়েছে শাকিল আহমেদ (২৬) নামের এক এম্বুলেন্স ড্রাইভার।সোমবার (২১ সেপ্টম্বর) বিকাল ৩ ঘটিকায় এম্বুলেন্সে করে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করতে গেলে স্থানীয় এলাকাবাসীর চোখে পড়লে এ্যাম্বুলেন্সটিকে ধরার চেষ্টা করেন এবং এক পর্যায়ে উপজেলার বিন্যাকুড়ি বাজারে ৪নং ইসবপুর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশের সহযোগিতায় এ্যাম্বুলেন্সটিকে আটক করা হয়।

আটক করে স্থানীয়রা ৪নং ইসবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবু হায়দার লিটনের কাছে নিয়ে আসেন। আটক ড্রাইভার শাকিল আহমেদ (২৬) উপজেলার ১২নং আলোকডিহি ইউনিয়নের দঃ আলোকডিহি গ্রামের মোঃ নুরুল আমিনের পুত্র। এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক মাস আগে থেকে স্কুল ও প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় ড্রাইভার শাকিল আহমেদ বিভিন্ন সময় তাকে প্রেমের প্রস্তাব সহ নানা ভাবে বিরক্ত করছিলো। বার বার প্রেমের প্রস্তাব কে এড়িয়ে চললে এক পর্যায়ে গত সোমবার মেয়েটি প্রতিবেশী ভ্যান চালক রফিকুল ইসলামের ভ্যানে তার আত্মীয়ের বাসা নান্দেড়াই গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

এমন সময় উপজেলার ঘুঘুরাতলী এলাকার দারুল ফালাহ্ মাদ্রাসার সামনে মোহনা এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস নামে একটি এ্যাম্বুলেন্স ভ্যানের সামনে এসে পথরোধ করেন। পরে মেয়েটিকে ড্রাইভার শাকিল আহমেদ ও অজ্ঞাতনামা তার আরেকজন সহযোগী এ্যাম্বুলেন্সের ভিতরে ঢোকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তরুনীকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এ্যাম্বুলেন্সটি অনেক বেশী স্পিডে ছিলো। স্থানীয়রা অনেক চেষ্টার পর বিন্যাকুড়ি বাজারে এ্যাম্বুলেন্সটিকে আটক করতে সক্ষম হয় তারা।

এরপর চেয়ারম্যান আবু হায়দার লিটন বিষয়টি জানার পরে মেয়ে ও ছেলের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি অবগত করেন তিনি। পরে চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকারের নির্দেশে একটি পুলিশের ভ্যানে করে আটক ড্রাইভার শাকিল আহমেদকে থানায় নিয়ে আসেন। এ ব্যাপারে তরুনীর পিতা মোঃ আমিন উদ্দিন বাদী হয়ে চিরিরবন্দর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। পরে মঙ্গলবার চিরিরবন্দর থানা থেকে আসামী শাকিল আহমেদকে দিনাজপুর জজ আদালতে প্রেরণ করা হয়।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..