মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:১৭ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে পুকুর খননের প্রতিবাদে মডেল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন তাড়াশে মডেল প্রেসক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ম্যাগনেট আঃলীগের মনোনয়ন পেয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ তাড়াশে বিজয় দিবস বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে ভোট কেন্দ্র পরিবর্তন না করার দাবীতে মানববন্ধন তাড়াশে স্কুলের সভাপতি হলেন আওয়ামীলীগ নেতা জহুরুল ইসলাম মাষ্টার মাটির চুলায় খড়-কুটোর রান্না তাড়াশে বাল্য বিবাহ ও ধর্ষণকে লাল কার্ড তাড়াশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য পদ পেলেন জিল্লুর রহমান তাড়াশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হলেন সাইদুর রহমান

নওগাঁয় দাদিকে ধর্ষনের ঘটনায় নাতী শ্রীঘরে!

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : সোমবার ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৪৭ বার পঠিত

অহিদুল ইসলাম, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মহাদেবপুরে বিধবা দাদীর সাথে নাতীর পরক্রিয়া প্রেমের সম্পর্ক। আপত্তিকর অবস্থায় গ্রামবাসী কর্তৃক দাদী ও নাতীকে আটক পূর্বক গ্রামের মাতব্বর ও স্থানিয় ইউপি সদস্যর উপস্থিতিতে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে দিনভর দফায় দফায় আপোষ মিমাংসার চেষ্টা বার্থ হওয়ায় মাতব্বরদের সহযোগীতায় লম্পট নাতী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অবশেষে নাতীর বিরুদ্ধে দাদীর মামলা দায়ের। লম্পট নাতীকে আটক করে আজ ১৪ সেপ্টেম্বর সোমবার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করেছে পুলিশ। এলাকায় আলোচিত এঘটনাটি ঘটেছে মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর ইউনিয়নের চকরাজা গ্রামে।

স্থানিয়রা জানান, চকরাজা গ্রামের নাসির উদ্দীনের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৪২) তার দাদার মৃত্যুর পর দাদার বিধবা ছোট স্ত্রী (দাদি) হাসিনা বেগম (৪০) এর সাথে পরক্রিয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। পরকীয়ার সুত্রধরে গত শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে জাহাঙ্গীর আলম তার বিধবা দাদীর ঘড়ে ঢুকে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হলে এসময় তাদের আপত্তিকর অবস্থায় গ্রামের লোকজন ঘড়ে আটক করে রাখেন এবং গতকাল রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত গ্রামের জৈনক বাবু ও স্থানিয় ইউপি সদস্য আবুল কালামের নের্তৃত্বে গ্রাম্য মাতব্বররা দফায় দফায় ঘটনাটি টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা (আপোষ মিমাংসা) দেওয়ার চেষ্টা চালালে ও বিধবা দাদী টাকার বিনিময়ে আপোষ করতে রাজি না হয়ে নাতীকে বিয়ের দাবি জানায়।

এরিমধ্যেই সুযোগ বুঝে মাতব্বরদের সহযোগীতায় আটক করে রাখা লম্পট নাতী জাহাঙ্গীর আলম পালিয়ে গেলে অবশেষে বিধবা দাদী হাসিনা বেগম মহাদেবপুর থানায় গিয়ে লম্পট নাতী জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে ঐ দিনই রাতে থানা পুলিশ কৌশলে অভিযান চালিয়ে নাতী জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করেন।

আপত্তিকর অবস্থায় দাদী ও নাতীকে আটক করার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানিয় ইউপি সদস্য আবুল কালাম প্রতিবেদককে জানান, গ্রামের লোকজন আপত্তিকর অবস্থায় রাতে দাদী ও নাতীকে ঘড়ে আটক করে রাখলেও সকালে আমাকে খবর দেয়। খবর পেয়ে আমি সকালে ঘটনাস্থলে একবার গিয়েছিলাম জানিয়ে তিনি বলেন, টাকার বিনিময়ে আমি কোন আপোষ- মিমাংসা বা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করিনি তবে স্থানিয় গ্রামের মাতব্বররা সামাজিকভাবে মিমাংসার চেষ্টা করেছে বলে জেনেছি।

এব্যাপারে মহাদেবপুর থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম জুয়েল সত্যতা নিশ্চিত করে সময়ের সংবাদ কে জানান, চকরাজা গ্রামের এক বিধবা নারীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষন করে আসছিলেন নাতী জাহাঙ্গীর আলম। এঘটনায় নারীটি মামলা দায়ের করলে রাতেই ধর্ষক নাতী জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করে আজ ১৪ সেপ্টম্বর সোমবার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে এবং ভিকটিম দাদীকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে মেডিকেল করানো হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছেন ওসি।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..