শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে দলিলকৃত জায়গা জোরপূর্বক দখল করার অভিযোগ পদ্মা সেতু দেখতে গেছেন স্বামী, বউ-শাশুড়িকে প্রেমিকের সঙ্গে ধরলেন জনতা প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে তাড়াশে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে তাড়াশে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ তাড়াশে আওয়ামীলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তাড়াশে মাদক সেবন করে মাতাল অবস্থায় ছাত্রদলের নেতা আটক তাড়াশে আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত অসুস্থ তফেরের পাশে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খাঁন সারাদেশে বিএনপির অরাজকতার সৃষ্টির প্রতিবাদে তাড়াশে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল

অনলাইন পোর্টাল সংবাদপত্রের নিবন্ধন দেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী

সাইফুদ্দিন, নিজস্ব প্রতিনিধি:
  • Update Time : বুধবার ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৭৩ বার পঠিত

অনলাইন পোর্টালের মূলধারার সংবাদপত্রগুলোর নিবন্ধন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেয়া হবে। তাছাড়া বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে আটকেপড়া সংবাদপত্রের বকেয়া বিল পরিশোধ করতে আবারও তাগাদাপত্র দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের
সভাকক্ষে সম্পাদক পরিষদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সম্পাদক পরিষদের সঙ্গে আমাদের নিয়মিত বৈঠক হয়। (মঙ্গলবার) সে রকম
একটি বৈঠক ছিল। আমরা সবসময় সংবাদপত্রের বিশেষ করে মিডিয়ার বিভিন্ন বিষয়
নিয়ে আলোচনা করি। মঙ্গলবার সে বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বিশেষ করে পত্রিকার
অনলাইন ভার্সনগুলোর নিবন্ধন দ্রুত দেয়া নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা মনে করি,
যেসমস্ত পত্র-পত্রিকাগুলো বের হয় ঢবিশেষ করে প্রথম শ্রেণির পত্র-পত্রিকার অনলাইন
ভার্সন রেজিস্ট্রেশন দেয়ার ক্ষেত্রে খুব বেশি তদন্তের কিছু নেই। কারণ এগুলো তদন্ত
করেই বের হয়। সুতরাং আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পত্রিকাগুলোর অনলাইন ভার্সনের
রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করব। এ সময় তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে পত্র-পত্রিকার
অনেক বিল আটকে আছে। কোনো পত্রিকার ১০ কোটি, ১৫ কোটি, ২০ কোটি টাকা।
এরকম করে কয়েকশ’ কোটি টাকার বিল বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দফতরে আটকে আছে। ওই
বিলগুলো যাতে ছাড় করা হয় সেজন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ওই সব মন্ত্রণালয় ও
দফতরে একটি তাগাদাপত্র দেব। কারণ ইতোপূর্বে পত্র-পত্রিকার বিল ছাড় করার জন্য
কেবিনেট ডিভিশন থেকে সব মন্ত্রণালয় ও দফতরে তাগাদাপত্র দেয়ায় কিছু বিল ছাড়
হয়েছিল। তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ আরও বলেন, যে পরিমাণ বিল বকেয়া আছে আর যে
পরিমাণ ছাড় হয়েছে- তা খুবই নগণ্য। সেজন্য আমরা আরও একটি তাগাদাপত্র দেব।
(মঙ্গলবার) সবার সঙ্গে আলোচনাক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..