শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১২ অপরাহ্ন

যশোরের ঝিকরগাছায় আম্ফান ঝড়ে সড়কে দীর্ঘদিন পড়ে রয়েছে গাছ, অপসারণের দাবি।

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : বৃহস্পতিবার ২০ আগস্ট, ২০২০
  • ১২০ বার পঠিত

যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নের বাগআঁচড়া টু জগদানন্দকাঠি সড়কের কুলবাড়ীয়া ছোট আমতলা নামক স্হানে আম্ফান তান্ডবের উপড়ে পড়া বড় একটি আমগাছ খোদ রাস্তার উপরেই পড়ে আছে।দীর্ঘদিন যাবত গাছটি সড়কের পাশে পড়ে থাকলেও স্হানীয় জনপ্রতিনিধিসহ উদ্ধতন কতৃপক্ষের কোন মাথা ব্যাথা নেই অপসারনের। আর সড়কে গাছটি পড়ে থাকার ফলে চলাচলে ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন এই এলাকার জনসসাধারন।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,সম্প্রতি আম্ফান ঘুর্ণিঝড়ে উপড়ে যাওয়া গাছটি সরকারী হওয়ায় এলাকার লোকজন সরকারী আইনের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শণ করেই গাছটির কোন ক্ষতিসাধন করেনি। বরং চেয়ে আছে উপর মহলের দিকে কবে নাগাদ গাছটি অপসারণ হবে আর জনগণ ফিরে পাবে রাস্তা দিয়ে সুবিধামত চলার স্বাধীনতা?

এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রহমান জানান, আম্পান ঝড়ের পর থেকে এভাবে জনগনের চলাচলের মেইন সড়কেন উপর বড় গাছটি পড়ে আছে দীর্ঘদিন।প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে হাজার হাজার জনসাধারনের চলাচলের পাশাপাশি ও শত শত ছোট বড় যানবাহন বাগআঁচড়া বাজার সহ বিভিন্ন উপজেলা ও জেলা শহরে যাতায়াত করে ও পণ্যপরিবহন করে।

গাছটি উপড়ে যাওয়ার পর থেকে বড় ধরনের যানবাহন চলাচলে যেমন বাধা পড়েছে তেমনি পণ্য পরিবহনেও হচ্ছে অসুবিধা।গাছ পড়ে সড়কের স্হান সংকীর্ণ হওয়াতে এখানে ছোটখাট দূর্ঘটনা ঘটছে প্রতি নিয়ত।

অপর একজন আলী হোসেন জানান, ছোট আমতলা পাসেই অবস্থিত কুলবাড়ীয়া বি কে এস মাধ্যমিক বিদ্যালয়,কুলবাড়ীয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কুলবাড়ীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা। করোনার কারনে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আপাতত বন্ধ রয়েছে।শুনেছি সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। এমত অবস্হায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আগেই যেন রাস্তার উপর গাছটি অপসারণ করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ও সাধারণ জনগণের চলাচল এ পথে নির্বিঘ্ন হয় সেজন্য উপর মহলের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার জনগণ।

এ ব্যাপারে ১০ নং শংকরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নিছার উদ্দীন জানান, বিষয়টি শুনে সরেজমিন গিয়ে দেখতে পায় সড়কে গাছটি পড়ে থাকার কারনে এলাকার জনসাধারণের চরম অসুবিধা হচ্ছে।পরে বিষয়টি তৎকালিন ইউএনও স্যারকে জানানো হয়েছিলো। তিনি বিষয়টি দেখবেন বলে সেই সময় জানিয়েছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরাফাত রহমান জানান,বিষয়টি আমার জানা নেই। এই প্রথম আমি শুনলাম। কোন অভিযোগ ও পাইনি।তবে বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসি কোন অভিযোগ পাইলে অবশ্যয় সড়কে পড়ে থাকা গাছটি অপসারন করা হবে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..