রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১২:২৭ অপরাহ্ন

News Headline :
সারাদেশে বিএনপির অরাজকতার সৃষ্টির প্রতিবাদে তাড়াশে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল তাড়াশে শেয়াল মারার ফাঁদে শিশুর মৃত্যু তাড়াশে পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি হলেন রজত ও সাধারণ সম্পাদক আনন্দ ঘোষ তাড়াশে উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হলেন মিনি ও সাধারণ সম্পাদক টুনি তাড়াশে ছাত্র অধিকার পরিষদের সাংগঠনিক কমিটি অনুমোদন তাড়াশে মরা মানুষের টাকাসহ ৪ শিক্ষকের বেতন ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ মাদ্রাসার ২ জন সুপারের বিরুদ্ধে তাড়াশে ধান কাটার শ্রমিকের সংকট তাড়াশে কৃষি শ্রমিকদের মারধর, ৮ জন আহত তাড়াশে শিশু কন্যা আটকে রেখে মাকে নির্যাতন, থানায় অভিযোগ তাড়াশে খেলার মাঠের জন্য মানববন্ধন

উখিয়ায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মকবুল হোসাইন মিথুনের বিভিন্ন কার্যক্রম

শাহেদ হোছাইন মুবিন
  • Update Time : শনিবার ১৫ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৫২ বার পঠিত

উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসাইন মিথুনের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসাইন মিথুনের পক্ষ থেকে কালো ব্যাচ ধারণ, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্থবক অর্পণ দোয়া ও মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার সকাল ১০ঘটিকার সময় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসাইন মিথুনের সভাপতিত্বে কালো ব্যাচ ধারণ করে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ।

পরে বটতলী জামে মসজিদে আলীম দ্বারা দোয়া ও মিলাদ মাহফিল সম্পন্ন করেন। দোয়া ও মিলাদ মাহফিল শেষে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।

মকবুল হোসাইন মিথুন বলেন, ১৫ আগস্ট, জাতীয় শোক দিবস। মানব সভ্যতার ইতিহাসে ঘৃণ্য ও নৃশংসতম হত্যাকাণ্ডের কালিমালিপ্ত বেদনাবিধূঁর শোকের দিন।

১৯৭৫ সালের এই দিনে মানবতার শত্রু প্রতিক্রিয়াশীল ঘাতকচক্রের হাতে বাঙালি জাতির মুক্তি আন্দোলনের মহানায়ক, বিশ্বের লাঞ্ছিত-বঞ্চিত-নিপীড়িত মানুষের মহান নেতা, বাংলা ও বাঙালির হাজার বছরের আরাধ্য পুরুষ, বাঙালির নিরন্তন প্রেরণার চিরন্তন উৎস, স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন
উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, ইব্রাহীম আজাদ, সাবেক ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম , সাবেক গণশিক্ষা সম্পাদক সাইফুল ইসলাম , সাবেক সহ সভাপতি মানিক, রাজা পালং ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান কাজল, সাবেক রত্ন পালং ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তানবীর,বর্তমান উখিয়া কলেজ সভাপতি সাইদুল আমিন টিপু,রাজাপালং ইউনিয়নের সভাপতি আলমগীর ফরিদ নিঝুম,সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন চৌধুরী,মোরশেদ, সিরাজ,তারেক, সাদেক,ইলিয়াস,ফাহিম সহ উপজেলা ইউনিয়নের নেতাকর্মী।

উপস্থিত সকলে দাড়িয়ে ১ মিনিট নিরোবতা পালন করেন। বক্তারা বলেন,বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাংলার মানুষের জন্য উজ্বল নক্ষত্র। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করতে হবে। তার নেতৃত্ব ছিলো বলিষ্ঠ। কিছু কুচক্র মহল সরযন্ত্রের মধ্যোমে বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীন বাংলাদেশে বাচতে দেয়নি। বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবাবের ১৭ জন সদস্যকে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়। ভাগ্যের জোরে বেচে গিয়েছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও তার বোন শেখ রেহেনা। তারা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করতে হবে। শোককে শক্তিতে রুপান্তরিত করতে হবে। যে বাংলায় বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকতে পারেনি, সেই বাংলায় তার খুনিদের স্থান দেওয়া হবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার শুরু করেন। অনেক খুনির ফাসি হলেও এখনো কিছু খুনিরা পালিয়ে রয়েছেন। তাদের অনতি বিলম্বে বাংলার মাটিতে বিচারের দাবী জানান বক্তরা।

আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদদের আত্তার মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..