সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০২ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালিত তাড়াশে ছাত্রলীগ নেতা ছোটনের ধুমধামে জন্মদিন পালিত তাড়াশে এমপি আজিজের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন তাড়াশে পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন আওয়ামীলীগ নেতা শামীম সরকার তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল বাকীর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন। তাড়াশে শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হান্নান তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে গাছের চারা বিতরণ তাড়াশে নওগাঁ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল।

মাদারীপুরে সন্ত্রাসী তান্ডবে অর্ধশতাধিক বাড়ি ও দোকান ভাংচুর।

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : বুধবার ১২ আগস্ট, ২০২০
  • ১১৫ বার পঠিত

মাদারীপুর প্রতিনিধি ; মাদারীপুর পৌর শহরের পাকদি এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দফায় দফায় দুই পক্ষের হামলায় অর্ধশতাধিক বসতঘর ও দোকান ভাংচুরসহ লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে । এঘটনায় আইয়ুব আলী ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ আহত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষ চলে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে কয়েকদিন আগে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মিথুন খলিফাকে মারধোর করে নাজমুল হাসান নামে এক যুবক। এ ঘটনার পড়ে নাজমুল কে মেরে আহত করে মিথুন খলিফা। এরপরেই সারা এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে এ সংঘর্ষ।
পাকদি এলাকার আইয়ুব আলী, সামচুল হক, আঃ রব বেপারী, সোবাহান মাস্টার, বেল্লাল বেপারীসহ বেশকিছু লোক অভিযোগের সুরে বলেন, হাই বেপারীর নির্দেশে মনিরুজ্জামান ফারুক আমাদের এলাকায় হামলা চালিয়ে দোকান ও বসতঘর ভাংচুর করেছে। আমাদের সাথে তাদের কোন ঝামেলা নেই। আমাদের বসতঘর ও দোকান তারা শুধু শুধু ভাংচুর করেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।
ভাংচুর হওয়া আরেক দোকান মালিক রহমান খলিফা। তিনি বলেন, আমার দোকানের টিভি ফ্রিজ সবই ভাংচুর করেছে। ফারুক, তুষার, সোহাগ বেপারীসহ বেপারি বাড়ির লোকজন এ ঘটনা ঘটিয়েছে।
সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম বলেন, আমার দোকানে ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়েছ বেপারী বাড়ির লোকজন। আমি এর বিচার চাই।

মনিরুজ্জামান ফারুক বলেন, শাকিল, সোহাগ সাব্বিরসহ বেশ কয়েক জন সন্ত্রাসী মিলে আমার দোকান ও বাসায় ভাংচুরসহ লুটপাট করেছে।
এই ব্যাপারে হাই বেপারী বলেন, দুই পক্ষই আমার লোক। মারামারি ঘটনার সাথে আমি জড়িত না।

আজ ১২ আগস্ট (বুধবার) দুপুর পর্যন্ত দুই পক্ষকে ঢাল, টেটা, রামদা নিয়ে নিজ নিজ এলাকায় প্রস্তুত থাকতে দেখা গেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) বদরুল আলম মোল্লা বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। থানায় এখনো কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..