সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১০ অপরাহ্ন

News Headline :
তাড়াশে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালিত তাড়াশে ছাত্রলীগ নেতা ছোটনের ধুমধামে জন্মদিন পালিত তাড়াশে এমপি আজিজের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন তাড়াশে পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন আওয়ামীলীগ নেতা শামীম সরকার তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল বাকীর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন। তাড়াশে শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হান্নান তাড়াশে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক যেন জনসভায় পরিণত তাড়াশে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে গাছের চারা বিতরণ তাড়াশে নওগাঁ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল।

গাইবান্ধায় আমন চারা রোপণ নিয়ে বিপাকে কৃষক

শেখ মোঃ সাইফুল ইসলাম, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার ১১ আগস্ট, ২০২০
  • ১৫৭ বার পঠিত

ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার নিচে নেমে আসার ফলে জেলার সবগুলোর নদ-নদীর পানি এখন বিপদসীমার নিচে। ঘাঘট, তিস্তা, করতোয়া ও বাঙালীসহ অন্যান্য নদীর পানি বিপদসীমার অনেক নিচে নেমে আসে। কিন্তু নদী তীরবর্তী ২৬টি ইউনিয়ন ও চরাঞ্চল থেকে এখনো বন্যার পানি নেমে যায়নি।

উঠানের ঘরবাড়ি এখনো বন্যার পানিতে নিমিজ্জিত।

দীর্ঘ ৪৫ দিন যাবৎ বন্যার পানিতে তলীয়ে আছে এসব এলাকার ঘরবাড়ি।

ফলে এসব পরিবার গুলো এখনো বাঁধ ও আশ্রয় কেন্দ্রে রয়েছে।

একারনে বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের দূর্ভোগ বেড়েছে।

ভাষার পাড়া গ্রামের রহমান জানান ঈদের আগে ত্রান ও ভিজিএফ এর চাল পেয়েছি।
কিন্তু এ চাল দিয়ে ৭ দিনেও চলেনি।
ঘরবাড়ি থেকে পানি নেমে না যাওয়ায় এখনো বাঁধেই রয়েছি।

কোন কাজ নেই পরিবারের ৫ জন সদস্য কে নিয়ে অনাহারে অর্ধাহারে রয়েছি। এ বিষয়ে
জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানিয়েছেন, বন্যায় ৪টি উপজেলায় ৪৪ টি ইউনিয়নের ১ লাখ ৪৬ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

৬টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। ২শ ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যার পানিতে নিমিজ্জিত ছিল।

এছাড়া ৬৮ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থরা আশ্রয় নিয়েছিলেন।

বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা, ফুলছড়ি, গোবিন্দগঞ্জ ও সদর উপজেলায় খয়রাতি সাহায্য হিসেবে ৬০৫ মে. টন চাল, নগদ ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, গোখাদ্য ১২ লাখ, শিশু খাদ্য ৬ লাখ এবং ৬ হাজার ৬৫০ প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।
এদিকে কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের উপ-পরিচালক মাসুদুর রহমান জানান, বন্যায় সাড়ে ৩ হাজার জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। এসব কৃষকদের পূর্ণবাসনের জন্য ১শ ৫ বিঘা জমিতে আমন চারা তৈরি করা হয়েছে। বন্যার পানি নেমে গেলেই আগামী সপ্তাহে এসব চারা বিতরন করা হবে।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..