বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

বেপরোয়া হয়ে পড়ছে টঙ্গীর স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

আব্দুল খালেক সুমন,(গাজীপুর প্রতিনিধি):
  • Update Time : মঙ্গলবার ১১ আগস্ট, ২০২০
  • ৭৩৫ বার পঠিত

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী পূর্ব থানা দিন ৪৬ নং ওয়ার্ড অবস্থিত সাহাজ উদ্দিন সরকার মডেল একাডেমী এন্ড কলেজ এর প্রধান শিক্ষক মোঃ দেলোয়ার হোসেন এর অবহেলার কারণে শিক্ষকরা এখন বেপরোয়া হয়ে গেছে।
গত ৯/৮/২০২০/ ইং তারিখে গণিত বিভাগের সহকারি শিক্ষক মোঃ আমিনুল ইসলাম এর বাসায় আনুমানিক সকাল ১০ ঘটিকার সময় নূরে জান্নাত বয়স ১০ বছর এর একটি মেয়ে প্রাইভেট পড়তে যায়, সেদিন মোঃ আমিনুল ইসলাম এর স্ত্রী লুনা আক্তার তার ছোট ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালে ডাক্তার দেখানোর জন্য যায়, বাসা খালি থাকায় মোঃ আমিনুল ইসলামের মনে কুবুদ্ধি সঞ্চার হয় এবং আনুমানিক সকাল ১১ টা ১৫ মিনিট এর দিকে সকল ছাত্রীদের ছুটি দিয়ে দেয় এবং নূরে জান্নাত কে থাকতে বলে সবাই চলে যাওয়ার পর মোঃ আমিনুল ইসলাম নূরে জান্নাত এর শরীরের স্পর্শ কাতর জাগায় হাত বোলাতে থাকে একপর্যায়ে নুরে জান্নাত চিৎকার দিলে মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম তাকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করে এবং তার বাবা ও মায়ের কাছে বিচার দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। নূরে জান্নাত এর চিৎকারের কারণে ভয় পেয়ে আমিনুল ইসলাম তাকে ছেড়ে দেয় শুধু এই ঘটনাই নয় মেয়ের অভিভাবক প্রধান শিক্ষক এডভোকেট মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনের কাছে বিচার চাইতে গেলে তিনি তাৎক্ষণিক মোঃ আমিনুল ইসলামকে না ডেকে তাদেরকে পরের দিন সকাল ১০ ঘটিকার সময় আসতে বলেন এবং পরবর্তীতে আমিনুল ইসলাম কে ফোন দিয়ে স্কুলে ডেকে ব্যাপারটা মিট করার জন্য যেতে বলেন আমিনুল ইসলাম মেয়ের বাসায় গেলে হুমকি প্রদান করলে মেয়ের মা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেন এবং পরের দিন সকাল বেলা ১০ ঘটিকার সময় স্কুলে এসে আসামি কে আইনের হাতে সোপর্দ করেন, সাহাজ উদ্দিন সরকার মডেল একাডেমি এন্ড কলেজে ২০১১ সালে প্রাইমারি শিক্ষক হিসেবে প্রিন্সিপাল মোঃ দেলোয়ার হোসেন এই মোঃ আমিনুল ইসলামকে চাকরি প্রদান করেন এই স্কুলে কোন প্রকার কমিটি তিনি প্রদান করেন না এবং সকল ব্যাপারে তার সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অভিভাবক মন্ডলীর একটি কমিটি থাকে যে কমিটি যে কোন ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে থাকে অত্র স্কুল এন্ড কলেজে ২০১৪ ও ২০১৫ সালে মাননীয় ডিসি মহোদয়ের নির্দেশে একটি কমিটি গঠন করা হয় কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে পুনরায় কোন কমিটি না দিলে পূর্বের কমিটি বহাল থাকে কিন্তু তিনি এ নিয়ম তোয়াক্কা না করে একাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় দায়িত্ব পালন করেন এর প্রধান কারণ হচ্ছে স্কুলের যাবতীয় অর্থ আত্মসাৎ ও শোষণ করা যেমন ২০১৮ সালে টেস্ট পরীক্ষার্থীদের এক সাবজেক্ট খারাপ হওয়ার কারণে তিনি টাকা ছাড়া একজন ছাত্র কেউ পরীক্ষা দিতে দেননি এ কারণে ছাত্ররা ক্ষিপ্ত হয়ে রাস্তা বন্ধ করে আন্দোলন করেন পরবর্তীতে পুলিশের সহায়তায় ও মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি ও স্থানীয় কাউন্সিলর জনাব মোঃ নূরুল ইসলাম নূরু এর হস্তক্ষেপে বিষয়টি সুরাহা করা হয় এবং কোন স্কুলের যদি কমিটি না থাকে পূর্বক গঠিত কমিটির হস্তক্ষেপ ছাড়া কোন শিক্ষককে এমপিও করা যায় না কিন্তু প্রধান শিক্ষক টাকার বিনিময় সাতজন শিক্ষককে এমপিও তালিকাভুক্ত করান, তাদের মধ্যে দুইজন কলেজ শাখার বেতনভুক্ত শিক্ষক ছিলেন ১ নং মোঃ আমিনুর রহমান ২ য় মোঃ শফিকুল ইসলাম এটা সম্পূর্ণ আইন বিরোধী।
করোনা কালীন সময়ে যেখানে সরকারী সারা বাংলাদেশের স্কুল কলেজ বন্ধ থাকার কথা থাকলেও তিনি ১৩ ই জুন এবং ১৬ ই জুন স্কুলের সমস্ত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ডেকে প্রশ্ন ও খাতা দেন পরীক্ষা দেয়ার জন্য এই ব্যাপারটি পত্রিকাতে লেখালেখি হলেও তিনি কোন প্রকার তোয়াক্কা করেননি এমনকি পবিত্র ঈদুল আযহার কোন প্রকার সম্মানীয় তাদের শিক্ষকদের প্রদান করেননি সবশেষে তিনি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করার জন্য সাত লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন লকডাউন এর কারণে কোন প্রকার অনুষ্ঠান না হওয়ায় তিনি এই সাত লক্ষ টাকা স্কুলের একাউন্টে জমা না দিয়ে তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে জমা দেন তিনি। সাহাজউদ্দিন সরকার মডেল একাডেমী এন্ড কলেজ কে তার একটি পাপের সাম্রাজ্য হিসেবে গঠন করে তুলেছেন শুধু তাই নয় বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে তিনি জিয়ার জন্মদিন পালন করেন এবং বিএনপি ও জামাতের মিছিলে অংশগ্রহণ করেন বিদ্যালয় কোন কমিটির কথা হলে তিনি তা কৌশলে এড়িয়ে যান এসকল ব্যাপারগুলোতে দেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়োজিত কর্মকর্তা এবং অত্র জেলা শিক্ষা অফিসার এর সঠিক তদন্ত ও বিচারের আওতায় আনার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। একটি বিদ্যালয় সমাজ গঠন করার মাধ্যম কিন্তু সাহাজউদ্দিন সরকার মডেল একাডেমী এন্ড কলেজ সমাজ কথা ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করার মাধ্যম হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী এর পরিত্রাণ চায়।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..