শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৫৪ অপরাহ্ন

ভারতে কারা ভোগ শেষে দ্বিতীয় বারে বেনাপোল দিয়ে ফেরত তাবলীগ জামাত

মোঃ আঃ রহিম, বেনাপোল প্রতিনিধি:
  • Update Time : সোমবার ১০ আগস্ট, ২০২০
  • ১৭৪ বার পঠিত

বাংলাদেশি তাবলীগ জামায়াতের আটক ২৬৫ জন সদস্যের মধ্যে দ্বিতীয় বারে ১৭ জনকে ফেরত পাঠিয়েছে।তার মধ্যে পুরুষ ৯ জন ও মহিলা ৮ জন।

রবিবার (৯ আগষ্ট) রাত ৯ টার সময় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন তাদের পাসপোর্টের কার্যক্রম শেষ করে বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করেন।

ফেরত কৃত সকলে পাসপোর্টধারী যাত্রী।ফেরত যাত্রীরা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তাদেরকে ১৪ দিনের জন্য যশোরের ঝিকরগাছার গাজীর দরগাহের প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

জানা যায়, এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ২৬৫ জন তাবলীগ জামায়াতের কর্মীরা পাসপোর্ট যোগে ভারতে যায়। এসময় ভারতে করোনা প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। এ অবস্থার মধ্যে তাবলীগ কর্মীরা সেখানে অবস্থান করছিল। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর। পরে সেদেশের পুলিশ তাদের আটক করে দিল্লিতে ৬ জনকে সাপজেলে আটক করে এবং১১ জনকে হারিয়ানায় পুলিশের বিশেষ নিরাপত্তায় কোয়ারেন্টাইনে আটক রাখে। সেখান তাদের কে ৪ মাস আটক রাখার পরে দুই দেশের রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে আলোচনার পর তারা দেশে ফেরত আসে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহাসিন খান জানান, ভারতে আটক তাবলীগ জামায়াতের ১৭ জন সদস্যকে ভারত ইমিগ্রেশন আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। ফেরত আসা তাবলীগ সদস্যরা করোনা আক্রান্ত কিনা তা পরীক্ষার জন্য ইমিগ্রেশন মেডিকেল অফিসে পাঠানো হয়। সেখানে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তারা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল ডাঃআশরাফুজ্জামান জানান, ফেরত আসা তাবলীগ সদস্যদের প্রাথমিকভাবে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে। যেহেতু তারা দীর্ঘদিন ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে গণজামায়াতে মধ্যে ছিলেন। তারা ৪মাস সাজা ভোগ করেছেন। তাদের শরীরে করোনাভাইরাস আছে কিনা সেজন্য ১৪ দিনের জন্য সরকারি ভাবে যশোরের ঝিকরগাছার গাজীর দরগাহের প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।শঙ্কামুক্ত হলে ১৪ দিন পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন কর্তৃপক্ষ।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..