শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১৯ অপরাহ্ন

চিকিৎসা সেবায় মানবতার এক অনন্য উদাহরণ ডাঃ ফিরোজ আলম

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : শনিবার ৮ আগস্ট, ২০২০
  • ১৬৩ বার পঠিত

মোঃ ইলিয়াস আলী, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চিকিৎসা সেবায় এক অনন্য কৃতিত্ব অর্জন করেছেন রানীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফিরোজ আলম।

তিনি ২০১২ সালে মেডিকেল অফিসার হিসেবে যোগদান করে ২০১৫ সালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। রানীশংকৈল উপজেলায় নিবেদিত প্রাণ হিসেবে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন তার চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি গরিব ও অসহায় মানুষের কাছে হয়ে উঠেছেন মানবতার ফেরিওয়ালা।

তিনি ২০১২ সালে রানীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদানের পরে যেমন হয়েছে স্বাস্থ্য সেবার উন্নতি তেমনি অসহায় গরীব রোগীরা পেয়েছেন এক মানব প্রেমী চিকিৎসককে, হাসিমুখে কথা বলে রোগীদের মনে শক্তি ও সাহস যুগিয়ে থাকেন।

তিনি করোনা পরিস্থিতিতে সবাত্বক ভূমিকা রেখেছেন, মরণঘাতী করোনা ভাইরাস তার নৈতিকতায় কখনো পিছপা হতে দেয়নি কখনো বিচলিত না হয়ে করোনা সংক্রমিত রোগীদের খোঁজ খবর নেওয়া থেকে শুরু করে সকলের মনে সাহস যুগিয়ে তাদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।তার দেওয়া চিকিৎসা সেবায় ইতিমধ্যে অনেক ভালো সুনাম অর্জন করেছেন তিনি একজন সুচিকিৎসক হিসেবে সফলতা সাথে কাজ করে চলেছেন।

ডা. ফিরোজ আলমের সাথে কথা বলে জানা যায়, তিনি প্রতিনিয়ত মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন, অসহায় কোন রোগী তার কাছে আসলে কোন ফি ছাড়াই চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন এবং যাদের ঔষধ কেনার মতো সামর্থ্য নেই তাদের নিজের পাওয়া সেম্পূলের মাধ্যমে সহযোগিতা করেন, তিনি তার চিকিৎসা সেবায় কোন ফি নির্ধারণ করা ছাড়াই চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন ,যে যার সাধ্য মত যতটুকুই দেন তিনি ততো টুকুতেই সন্তুষ্ট, বর্তমান সময়ে এমন কম সংখ্যক চিকিৎসক খুঁজে পাওয়া দায়।

তার নৈতিকতার কারনে সকলের কাছে একজন প্রিয় ব্যক্তিত্য হয়ে উঠেছেন।তিনি বলেন, সেবা মানুষের পরম ধর্ম এমন নৈতিকতা সকল মানুষদের মাঝে তৈরি হোক আমাদের এই দেশে অনেক মানুষ আছে যারা টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারেন না আসুন আমরা যারা চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত আছি তাদের প্রতি একটু সহানুভূতির হাত বাড়িয়ে দেই‌।সকলের সম্মিলিত সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব বলে মনে করেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা করোনা ভাইরাস নামক এক অদৃশ্য শক্তির সাথে লড়াই করছি আপনারা সকলেই সরকারি স্বাস্থ্যবিধি ও স্বাস্থ্য সচেতনতা মেনে চলবেন সকলে মাস্ক ব্যবহার করবেন কিছুক্ষণ পর পর সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধৌত করবেন , নিজে সচেতন থাকবেন ও অপরকে সচেতনতায় উদ্বুদ্ধ করবেন। মনে রাখবেন এই পরিস্থিতি হয়তো বেশিদিন থাকবে না তাই আপনাদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। আল্লাহর নিকট একটায় প্রার্থনা আমারা যেন এই অন্ধকারের বেড়াজাল থেকে খুব তাড়াতাড়ি বেড়িয়ে আসতে পারি।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..