রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন

News Headline :
মহান বিজয় দিবস উদযাপন বাস্তবায়ন লক্ষ্যে তাড়াশে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৫২ বছর বয়সে এসএসসি পাশ করলেন কৃষক মতিন তাড়াশে গোপনে ম্যানেজিং কমিটি করার অভিযোগ শপথ নিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য শরিফুল ইসলাম তাজফুল তাড়াশে সুফলভোগীদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে কৃষকের মাঝে কৃষি যন্ত্রপাতি ও কৃষি উপকরণ বিতরণ  তাড়াশে ৫১তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত তাড়াশে সরকারি খাস জায়গা অবৈধভাবে দখল করে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাড়াশে মাধাইনগর ইউনিয়নের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত তাড়াশে ৩টি ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৪০ঃ শনাক্ত ৩৪৬৮

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : শুক্রবার ২৬ জুন, ২০২০
  • ১৯৮ বার পঠিত

সময়ের সংবাদ ডেস্কঃ

চব্বিশ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে ১৮ হাজার ৪৯৮ টি নমুনা পরীক্ষা করে ভাইরাসটির সংক্রমণ পাওয়া গেছে ৩ হাজার ৪৬৮ জনের শরীরে।

এই নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ১ হাজার ৬৬১ জন। আর আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জন।

আর নতুন ১ হাজার ৬৩৮ জন নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৫৩ হাজার ১৩৩ জন।বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগীর খোঁজ মেলে; এর দশ দিনের মাথায় ঘটে প্রথম মৃত্যু।

সবশেষ চব্বিশ ঘণ্টার তথ্যানুযায়ী, দেশে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০.৯১ শতাংশ। মৃত্যুর হার ১.২৭ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৪০.৭২ শতাংশ।

দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে শুক্রবার দুপুরে এসব তথ্য তুলে ধরেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, সবশেষ চব্বিশ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করাদের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ, ৯ জন নারী। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ১৪, চট্টগ্রাম ভাগের ১২ জন। চারজন করে বরিশাল ও খুলনা কিভাগের এবং তিনজন করে সিলেট ও রংপুর বিভাগের।

হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ৩১ জনের, বাড়িতে ৯ জনের।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সর্বোচ্চ ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে ৬১-৭০ বছর বয়সীদের মধ্যে। এরপরেই রয়েছে ৫১-৬০ বছর বয়সী, ১২ জন। মৃত ছয়জনের বয়স ৪১-৫০। তিনজন করে মৃত্যু হয়েছে ৩১-৪০ ও ৭১-৮০ বছর বয়সীদের মধ্যে এবং একজন করে মৃত্যু হয়েছে ০-১০ ও ৮০-৯০ বছর বয়সীদের মধ্যে।

বুলেটিনে বলা হয়, ঢাকা মহানগরীতে কভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল রয়েছে ১৬টি এবং ঢাকা জেলায় একটি। ঢাকা মহানগরে কভিড রোগীদের জন্য বেড সংখ্যা আছে ৬ হাজার ৭৭৩টি, আইসিইউ বেড আছে ১৮০টি।

করোনা রোগীদের জন্য বেডগুলোতে রোগী আছে ২ হাজার ৩৭৫ জন এবং আইসিইউ বেডগুলোতে রোগী আছে ৯৭ জন।

সকল বিভাগ মিলে করোনা রোগীদের জন্য সাধারণ বেড সংখ্যা ১৪ হাজার ৬১০টি এবং আইসিইউ বেড সংখ্যা ৩৭৯টি। সকল বিভাগে রোগী ভর্তি আছে ৪ হাজার ৬৯১ জন; আইসিসিইউ বেডে রোগী ভর্তি আছে ১৮৩ জন।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..