বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ১১:০৭ পূর্বাহ্ন

কুমিল্লায় তিন সন্তানের জননীকে ধর্ষণের চেষ্টা

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : শুক্রবার ২৪ এপ্রিল, ২০২০
  • ৯৫ বার পঠিত

রবিউল হোসাইন সবুজ,( স্টাফ রিপোর্টার): সময়ের সংবাদঃ

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট ট্রমা হাসপাতালের একজন নারী কর্মী হাসপাতালে কাজ শেষে বাড়ী ফেরার পথে দুজন বখাটে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

হাসপাতালের ওই নারী কর্মী উপজেলার মক্রবপুর ইউনিয়নের ভাতড়া গ্রামের তিন কন্যা সন্তানের জননী বলে জানা গেছে।

গত ২০ এপ্রিল সোমবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে ওই গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার খালের উপর ব্রিজ থেকে ওই নারীকে টেনেহেচড়ে বখাটেরা খালের ভিতরে নির্জন স্থানে নিয়ে গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ওই নারী তার হতে থাকা মোবাইলের আলোতে তাদেরকে চিনে ফেলে। পরে তাদের নাম ধরে আত্মচিৎকার করলে ভয়ে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

অভিযুক্ত বখাটেরা হলো একই গ্রামের মৃত ছেরু মিয়ার ছেলে শহিদুল ইসলাম শহিদ ও আবুল হাশেমের ছেলে ফারুক।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তিন কন্যা সন্তান নিয়ে অভাবের সংসার ওই নারীর। স্বামী অসুস্থ থাকায় নিজেই উপার্যনে নেমে যান। চাকুরী নেন নাঙ্গলকোট ট্রমা হাসপাতালে। প্রতিদিন সে একই সময়ে হেঁটে বাড়ী যান।

গত সোমবার রাতে কাজ শেষে বাড়ী ফেরার পথে বখাটেরা পূৃর্বে থেকে ব্রিজ এলাকায় ওৎ পেতে থাকে। ওই নারী ব্রীজের উপর উঠা মাত্রই বখাটে শহিদ ও ফারুক তার মুখ চেপে ধরে টেনেহেছড়ে শুকনো খালের ভিতর দিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে ভাতড়া গ্রামের অভিযুক্ত শহিদকে আটক করে নাঙ্গলকোট থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে সময়ের সংবাদ কে নাঙ্গলকোট থানা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসেন খন্দকার বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য একজনকে থানায় নিয়ে আসা হয়।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..