মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন

শাহরাস্তিতে দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো সাংবাদিকরা

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : বুধবার ২২ এপ্রিল, ২০২০
  • ১২৫ বার পঠিত

হাসান আহমেদঃ নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের সংবাদ:

মোশারফ হোসেন একজন অসহায় দরিদ্র কৃষক। তার পাকা ধান পড়ে আছে ফসলের মাঠে। করোনায় শ্রমিক ও অর্থ সংকটে সেই পাকা ধান ঘরে তোলা নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় ছিলেন তিনি।

অবশেষে দরিদ্র এই কৃষকের দুশ্চিন্তা দূর করলেন শাহরাস্তি অনলাইন প্রেসক্লাবের একদল সংবাদকর্মী।

এসময় শাহরাস্তি অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে ১০ জন সংবাদকর্মী ওই কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিয়েছেন।

২২ এপ্রিল বুধবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ১৫ শতক জমির ধান কেটে দেন তারা।

হাজ্বী আবদুর রশিদের পু্ত্র কৃষক মোশারফ হোসেন শাহরাস্তি উপজেলার পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের বাত্ত্বলা গ্রামের বাসিন্দা। এবিষয়ে সময়ের সংবাদ কে তিনি জানান, এবার ১৫ শতক জমিতে ইরি ধানের চাষ করেছি। ফলনও এবার ভালো হয়েছে। ক্ষেতের ফসলে পাক ধরেছে কিন্তু ধান কাটাতে শ্রমিকের মজুরী জোগাতে পারিনি।

এ অবস্থায় প্রতিবেশী সাংবাদিক মাহমুদুলকে বলেছি কষ্টের কথাগুলো। কিন্তু সকালে অবাক হয়ে দেখি কাঁচি হাতে একদল সংবাদকর্মী উপস্থিত ধান কাটতে।

আমাকে যারা এমন উপকার করলেন, আল্লাহ্ যেন তাদেরকে সুস্থ্য, সাহসী এবং ন্যায় পথে প্রতিবাদী হিসেবে কবুল করেন।

এবিষয়ে সময়ের সংবাদ কে শাহরাস্তি অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, সংবাদকর্মীরা যেকোনো মানবিক সঙ্কটে সাধারণ মানুষের পাশে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় মাহমুদুল হাসানের মাধ্যমে খবর পাই শ্রমিক সংকটের কারণে মোশারফ হোসেন তার পাকা ধান কাটতে পারছেন না। বৈশাখী মাস, তাই যে কোনো সময় ঝড়-বৃষ্টি হলে ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাই আমরা অনলাইন প্রেসক্লাবের সংবাদকর্মী কাঁচি-মাথাল (ধান কাটার সরঞ্জাম) নিয়ে হাজির হই এবং ধান কেটে কৃষকের বাড়ি তুলে দিয়ে আসি।

শাহরাস্তি অনলাইন প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক মো রাফিউ হাসান সময়ের সংবাদ কে বলেন, প্রথমে ওই কৃষক বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না, আমরা বিনা পারিশ্রমিকে তার ধান কেটে ঘরে তুলে দেবো। পরে যখন তার জমির ধান কেটে বাড়িতে এনে দিলাম তার মুখের হাসি আমাদের অন্যরকম আনন্দ দিয়েছে। এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছুই নেই। এই দুঃসময়ে প্রত্যেকের উচিত কৃষকদের পাশে দাঁড়ানো।

এবিষয়ে সময়ের সংবাদ কে কৃষক মোশারফ হোসেন বলেন, একজন শ্রমিকের মজুরি ৫/৬’শ টাকা। তার ওপর দুই বেলা ভাত দিতে হয়। এই লোকগুলো আমার বড় উপকার করে দিয়ে গেছে। তাদের জন্য কিছুই করতে পারলাম না, তবে দোয়া করছি।

শাহরাস্তি অনলাইন প্রেসক্লাবের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সভাপতি মো হাসানুজ্জামান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো মাহমুদুল হাছান, সহসাধারণ সম্পাদক ও শাহ্‌রাস্তি ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও আইটি শিক্ষক হাসান আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রাফিউ হাসান হামজা, সম্মানিত সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, ফারুক হোসেন, কামাল হাসান, শাহআলম, জামাল আহমেদ, আসগর হোসেন প্রমুখ।

এর আগে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছেন অনলাইন প্রেসক্লাবের সদস্যরা। এছাড়াও মাইকিং করে জনসচেতনতা সৃষ্টি, ফ্রি মুখের মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস বিতরণ, লিফলেট বিলিসহ অসহায় ও মধ্যবিত্তদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..