বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫৯ পূর্বাহ্ন

ময়মনসিংহে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৫ মামলা

সময়ের সংবাদ ডেস্ক
  • Update Time : রবিবার ১৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ৮৬ বার পঠিত

এস.এম.জামাল উদ্দিন শামীম, নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহঃ সময়ের সংবাদ: 

চলমান মহামারী করোনা ভাইরাস পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণে জনগণকে সচেতনতা সৃষ্টি,সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণ ও লকডাউন বাস্তবায়নে ময়য়মননসিংহ জেলা প্রশাসকের নির্দেশনয় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।

জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফৌজিয়া নাজনীন,মাহামুদা হাসান, সেগুফতা মেহনাজ পৃথক অভিযান চালিয়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ঘোষিত লকডাউন আইন অমান্য করে দোকান পাট খোলা রাখা, মটরসাইকেলে ৩ জন উঠা, চায়ের দোকান খোলা রাখা,সরকারী আদেশ অমান্য করে কাপড়ের দোকান, রডের দোকান খোলা রাখাও অটো চালানোর দায়ে ১৫ টি মামলার মাধ্যমে ৩৩.৭০০ ( তেত্রিশ হাজার সাতশত) টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এদিকে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা চুরখাই বাজারে করোনা মোকাবিলায় সরকারি নির্দেশ অমান্য করে অকারণে যানবাহন চালানো, অহেতুক ঘর থেকে বাহিরে ঘোরাফেরা করা দায়ে ২ জনকে সর্বমোট ১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। রবিবার দুপুর ১২ টায় থেকে রাত পর্যন্ত পুলিশ এবং আনসার এর সহযোগিতায় জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেগুফতা মেহনাজ লাবণ্য এর নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে সূত্র জানা যায়, ময়মনসিংহ শহরের বিভিন্ন স্থান, বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় এই অভিযানে এসব জরিমানা করা হয় । অভিযানে ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় এক জনের বিরুদ্ধে ১টি মামলা দায়ের করে ৫০০টাকা অর্থ দন্ড করা হয় এবং ২৬৯ ধারা আইনে ১ জনের বিরুদ্ধে ১টি মামলায় দায়ের করে ৫০০ টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করেন জেলা প্রশাসনের এই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। করোনা ভাইরাস থেকে জনগনকে রক্ষার জন্য সরকারের নির্দেশে এই অভিযান চালানো হচ্ছে এবং জনস্বার্থে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেগুফতা মেহনাজ লাবণ্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা ছাড়াও জনসমাগম রোধ এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ময়মনসিংহের বিভিন্ন সহ সর্বত্র জোর টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী, র‌্যাব এবং পুলিশ।

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..