বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১২:৩১ পূর্বাহ্ন

তাড়াশে সমাজসেবা কর্মকর্তার কান্ড

admin
  • Update Time : সোমবার ২৫ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২৭৬ বার পঠিত

গোলাম মোস্তফা, নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের সংবাদ:
সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শাহাদৎ হোসেনের বিরুদ্ধে অফিসের দরজা আটকিয়ে নৈশ্য প্রহরীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে হাসপাতালে পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকালে তার কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শাহাদৎ হোসেন কোন যৌক্তিক কারণ ছাড়াই নৈশ্য প্রহরী আব্দুর রাজ্জাককে (৫৬) গালাগাল ও শারীরিকভাবে মারধর করে আসছিলেন। গত রবিবারও ওই কর্মকর্তা নৈশ্য প্রহরী আব্দুর রাজ্জাককে তার অফিস কক্ষে ডেকে এনে সামান্য বিষয় নিয়ে গালাগাল করেন ও চড় থাপ্পড় মারেন। এতে ওই নৈশ্য প্রহরী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে সমাজসেবা কর্মকর্তা নিজেই তাকে তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দেন।
সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নৈশ্য প্রহরী উর্দ্ধত্বন কর্মকর্তাদের নিকট সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এমন খবর পেয়ে সমাজসেবা কর্মকর্তা তাকে নিজ অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে দরজা আটকিয়ে বেধরক পেটাতে থাকেন। এক পর্যায়ে নৈশ্য প্রহরী গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তার সহকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে তাড়াশ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হাসপাতালে স্থানান্তর করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক।
এদিক নৈশ্য প্রহরী আব্দুর রাজ্জাককে ছেলে মজনু মিঞা তার বাবাকে সমাজসেবা কর্মকর্তা কর্তৃক পেটানোর বিষয়টির প্রতিকার চেয়ে সোমবার দুপুরে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সমাজসেবা কর্মকর্তা শাহাদৎ হোসেন নৈশ্য প্রহরী আব্দুর রাজ্জাককে মারধরের কথা অস্বীকার করে বলেন, রবিবার তাকে ধমক দেওয়া হয়েছে মাত্র। সোমবার তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে গিয়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।
এ প্রসঙ্গে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. ওবায়দুল্লাহ অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

Please follow and like us:

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..