বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

সিরাজগঞ্জে সাংবাদিককে পেটালো উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি

গোলাম মোস্তফা, নিজস্ব  প্রতিবেদক, সময়ের সংবাদ:

সিরাজগঞ্জে কামারখন্দে উপজেলা পরিষদে কৃষিকার্ডের লটারির সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়ায় আব্দুর রাজ্জাক রাজ নামে এক সাংবাদিককে পিটিয়েছে কামারখন্দ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আল-আমিন ওরফে বাবু। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলা পরিষদের নীচতলা এ ঘটনা ঘটে। সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক রাজ দৈনিক দিনকাল পত্রিকার কামারখন্দ-বেলকুচি প্রতিনিধি। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মারপিটের শিকার সাংবাদিক। স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতির সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে সাংবাদিকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে।অবিলম্বে সন্ত্রাসী স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। লিখিত অভিযোগ-সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক জানান কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে উপজেলা ঝাঐল ও ভদ্রঘাট ইউনিয়নের কৃষকদের ধান ক্রয়ের জন্য কৃষিকার্ডের লটারি হবে। এজন্য সংবাদ সংগ্রহের জন্য চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে যাবার পর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আল-আমিন বাবুসহ তার সাথে থাকা কয়েকজন আমাকে কলার ধরে চেয়ারম্যানের রুম থেকে টেনে-হিচড়ে নীচে নামিয়ে আনে। নীচে নামার পর কেন কৃষিকার্ডের সংবাদের জন্য এসেছিস-একথা বলে মারপিট শুরু করে। পরে আমার চিৎকারে উপজেলা চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ সবুজ দৌড়ে নীচে এসে আমাকে তাদের হাত রক্ষা করে। এক পর্যায়ে তারা আমাকে হত্যা করবে বলে হুমকি চলে যায়। ঘটনার পর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ সবুজ জানান, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আল-আমিন বাবুসহ কয়েকজন সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক রাজকে মারপিট করছে দেখে দৌড়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করেছি। সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক রাজ কিছু নিউজ করেছিল যা তাদের বিপক্ষে গেছে এ জন্যই তাকে মারপিট করেছে বলেছে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। অন্যদিকে, উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে সাংবাদিককে মারপিটের ঘটনা ঘটলেও উপজেলা নির্বাহী অফিসার কিছু জানেনা বলে জানিয়েছেন। কামারখন্দ থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল ইসলাম জানান, সাংবাদিককে মারপিটের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপুর্বক প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।